স্বাস্থ্য

অ্যাজমা বা হাঁপানির কারন ও ৪টি প্রধান লক্ষণ

এমবিবিএস (৫ম বর্ষ), স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ।

অ্যাজমা বা হাঁপানি মূলত শ্বাস-প্রশ্বাস জনিত রোগ। শ্বাসনালীর অতি সংবেদনশীলতা বা Hypersensitivity-এর কারনে এই রোগ হয়ে থাকে। এই রোগের কারনে শ্বাসনালীর স্বাভাবিক ব্যাস কমে গিয়ে আগের চেয়ে সরু হয়ে যায়। যার ফলে ফুসফুসে পর্যাপ্ত পরিমান বাতাস যাতায়াত করতে পারে না। ফলে দেহ অক্সিজেনের অভাব অনুভব করতে শুরু করে।অক্সিজেনের অভাবজনিত কারনেই শ্বাসকষ্ট অনুভূত হয়।

অ্যাজমা বা হাঁপানির কারন:

১. বংশগত কারনে হয়

২. শিশুকে বুকের দুধ পান না করানো

৩. গর্ভাবস্থায় ধূমপান করা

৪. ফুলের রেণু, ধূলা-বালি, ধোঁয়া, বডি স্প্রে, উলের কাপড়, লেপ-তোষকের সংস্পর্শে হতে পারে।

৫. বেশ কিছু খাবার যেমন: গরুর মাংস, হাঁসের মাংস, হাঁসের ডিম, চিংড়ি মাছ, ইলিশ মাছ, মিষ্টি কুমড়া, বেগুন ইত্যাদি খেলেও হতে পারে।

৬. যাদের বারবার ঠাণ্ডা-কাশি হয় তাদের ঝুঁকি বেশি থাকে

৭. যারা অতিরিক্ত দৌড়াদৌড়ি করে তাদের বেশি হতে পারে

৮. বিটা ব্লকার জাতীয় ও ব্যথানাশক ওষুধ সেবনে হতে পারে

৯. ঋতু ও তাপমাত্রার পরিবর্তন

১০. মানসিক উত্তেজনা, অপারেশনের রোগী, গর্ভবতী মহিলা, স্বামী- স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া ইত্যাদি কারনেও হতে পারে।

আরো পড়ুন  লেপ্টোস্পাইরোসিস বা 'ফিল্ড ফিভার' রোগের লক্ষণসমূহ

অ্যাজমা বা হাঁপানির প্রধান উপসর্গ:

১. শ্বাসকষ্ট

২. শ্বাসের সাথে শব্দ হওয়া

৩. কাশি থাকে। কাশির সাথে কফ বের হতে পারে। এমনকি কফের সাথে রক্ত আসতে পারে।

৪. বুক ব্যথা অনুভূত হওয়া বা বুক চেপে আসা