স্বাস্থ্য

কন্টাক্ট লেন্সের ব্যবহার ও যত্নে করণীয়

রেসিডেন্ট (এমএস-চক্ষু), জাতীয় চক্ষুবিজ্ঞান ইনস্টিটিউট, ঢাকা।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে উন্নয়নের আশীর্বাদ স্বরূপ মোবাইল ও ল্যাপটপ এখন আমাদের নিত্য সঙ্গী। একই সাথে বৃদ্ধি পেয়েছে দৃষ্টি সমস্যা। ফলে চশমাটাও আমাদের দৈনন্দিন জীবনের অনুষঙ্গ হয়ে গিয়েছে। কিন্তু অনেকেরই চশমা ব্যবহারে রয়েছে প্রবল অনীহা। বিশেষত সৌন্দর্য সচেতন মানুষের কাছে চশমা এখন অপছন্দের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে। তাই ক্রমেই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে লাসিক (LASIK) ও কন্টাক্ট লেন্সের (Contact Lens) মতো বিকল্প উপায়গুলো। এর মধ্যে কন্টাক্ট লেন্স দামে সাশ্রয়ী ও সহজে ব্যবহারযোগ্য হওয়ায় এর ব্যবহার দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। আমরা অনেক সময় হুটহাট কন্টাক্ট লেন্স কিনে ব্যবহার করা শুরু করে দেই। কিন্তু কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহারের কিছু সুনির্দিষ্ট নিয়ম আছে এবং লেন্সের যত্ন না নিলে এর জন্যে বেশ ভুগতে হতে পারে। তাই আসুন, কন্টাক্ট লেন্সের যত্নে করণীয় কি তা জেনে নেই-

কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহারের সময় করণীয়:

১। কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহারের পূর্বে পরিষ্কার পানি ও সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নিতে হবে। এরপর পরিষ্কার শুকনো কাপড় দিয়ে হাত মুছে ফেলতে হবে।

২। কখনোই কন্টাক্ট লেন্স পরে ঘুমানো যাবে না।

৩। কন্টাক্ট লেন্সকে কখনোই সাধারণ পানির সংস্পর্শে আনা যাবে না। তাই গোসল এবং সাঁতার কাটার সময় অবশ্যই কন্টাক্ট লেন্স খুলে রাখতে হবে।

কন্টাক্ট লেন্সের যত্ন:

১। প্রতিবার ব্যবহারের পর লেন্সটিকে খুলে কন্টাক্ট লেন্সের জন্যে নির্ধারিত সলিউশন দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে ফেলতে হবে। এক্ষেত্রে কখনই লালা বা পানি ব্যবহার করা উচিৎ নয়।

২। পরিষ্কার করার পর লেন্সটি অবশ্যই লেন্সের জন্যে নির্ধারিত সলিউশন এ রাখতে হবে। পানিতে রাখা যাবে না।

৩। চক্ষু চিকিৎসকের পরামর্শ ক্রমে নির্দিষ্ট সময় পর পর কন্টাক্ট লেন্স বদলাতে হবে।

আরো পড়ুন  চোখ ভালো রাখার ৫টি উপায়

কন্টাক্ট লেন্সের কাভার এর যত্ন:

১। লেন্সের ন্যায় লেন্সের কাভারটিও নিয়মিত নির্ধারিত সলিউশন দিয়ে ধুয়ে পরিষ্কার টিস্যু বা কাপড় দিয়ে মুছে ফেলতে হবে।

২। লেন্স কাভারটি প্রতি তিন মাস অন্তর অন্তর বদলাতে হবে।

লেন্স সলিউশন এর যত্ন:

১। কাভারে থেকে যাওয়া পুরাতন সলিউশনের সাথে কখনই নতুন সলিউশন মেশাবেন না। প্রয়োজনে পুরাতন সলিউশন ফেলে দিয়ে লেন্স কাভারটি আগের নিয়মে পরিষ্কার করতে হবে।

২। চশমার দোকানী নয় বরং চক্ষু চিকিৎসকের পরামর্শে নির্ধারিত লেন্স সলিউশন ব্যবহার করুন।

কন্টাক্ট লেন্সের অসতর্ক ব্যবহারের ঝুঁকিসমূহ

কন্টাক্ট লেন্সের ব্যবহারের ক্ষেত্রে যথাযথ সতর্কতা অবলম্বন না করলে চোখের কর্নিয়া ক্ষতিগ্রস্ত হবার ঝুঁকি থাকে। এছাড়া ভাইরাল, ব্যাকটেরিয়াল, ফাংগাল সহ চোখের যেকোন ইনফেকশনে কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহার করা উচিৎ নয়। কন্টাক্ট লেন্সটিতে পাওয়ার দেয়া থাকলে (ক্ষীণ দৃষ্টি বা দূর দৃষ্টির ক্ষেত্রে), অবশ্যই একই পাওয়ার সম্বলিত একটি চশমা সব সময়ই কাছে রাখতে হবে। লেন্স জনিত যেকোন সমস্যায় লেন্স খুলে চশমা ব্যবহার করুন।

কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহারের পর চোখ লাল হয়ে গেলে, ব্যথা করলে, চোখে অস্বস্তি অনুভব করলে এবং চোখে ঝাপসা দেখলে দ্রুত লেন্সটি খুলে ফেলুন এবং অনতি বিলম্বে একজন চক্ষু চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন। এছাড়া লেন্স নির্বাচন থেকে শুরু করে যেকোন সমস্যায় চক্ষু চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করুন। মনে রাখতে হবে, আমাদের দেহের অমূল্য সম্পদ চোখ মাত্র দুইটি। তাই এর যত্নে যথাযথ সতর্ক ও সচেতন হওয়া উচিৎ। যথাযথ যত্ন ও সতর্কতা না নিয়ে কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহার করে এই অমূল্য সম্পদকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলবেন না।