খাদ্য ও পুষ্টি

পেয়ারার ৭টি পুষ্টিগুণ

বি.এস.সি (আনার্স, শেষ বর্ষ), নিউট্রিশন অ্যান্ড ফুড টেকনলজি বিভাগ, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর।

পেয়ারাকে বলা হয় গরীবের আপেল। কারন ফলটি বেশ সহজলভ্য ও দামে সস্তা। কিন্তু এর পুষ্টিগুণ অনেক। পেয়ারাতে সম ওজনের একটি লেবু থেকে ১০ গুণ বেশি ভিটামিন এ, সম ওজনের একটি কমলালেবু থেকে ৪ গুণ বেশি ভিটামিন সি এবং সম ওজনের একটি কলা থেকে অনেক গুণ বেশি পটাশিয়াম পাওয়া যায়। এসব কারনেই পেয়ারাকে সুপার ফ্রুট বলা হয়। পেয়ারার কয়টি বিশেষ পুষ্টিগুণ সম্পর্কে চলুন জেনে নেই-

১। পেটের সমস্যায় পেয়ারা কার্যকর: পেয়ারা পরিপাকতন্ত্রকে শক্তিশালি ও সুগঠিত করে তোলে। এটি বিভিন্ন প্রকার সংক্রামক রোগ ও জীবাণুর আক্রমণকে প্রতিহত করে। আমাশয় নিরাময়ে পেয়ারা খুবই কার্যকর। পাকা পেয়ারা আতিরিক্ত আঁশ সমৃদ্ধ হওয়ায় কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে সাহায্য করে। এছাড়া পেয়ারা কোলন ক্যান্সার প্রতিরোধেও সাহায্য করে।

২। ভিটামিনের সমৃদ্ধ উguavaৎস: পেয়ারা ভিটামিন সি এর উৎকৃষ্ট উৎস। এছাড়া পেয়ারাতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, ই, কে ও বি-কমপ্লেক্স পাওয়া যায়। পেয়ারার ভিটামিন এ চোখকে ভাইরাস জনিত ইনফেকশন হতে রক্ষা করে। এছাড়া স্কার্ভি, মাড়ি দিয়ে রক্ত পড়া, ত্বকের শুষ্কতা ইত্যাদি দূর করতে পেয়ারা খুবই উপকারী।

৩। খনিজ বা মিনারেলস এর খনি পেয়ারা: পেয়ারাতে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম রয়েছে। এই পটাশিয়াম রক্তচাপ ও হৃদস্পন্দন নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখে। পটাশিয়াম পেশী ও স্নায়ুতন্ত্রের কার্যক্রম সচল ও সঠিক রাখে। এছাড়া পটাশিয়াম শরীরে এসিড বা অম্লের ভারসাম্য্ রক্ষা করে। পটাশিয়ামের পাশাপাশি পেয়ারাতে ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ ও জিংক পাওয়া যায়। শরীরের জন্য এই সবগুলো উপাদানই অতীব জরুরি।

আরো পড়ুন  দ্রুত ওজন কমাবে যে ৭টি খাবার

৪। সর্দি-কাশির প্রকোপ কমায়: পেয়ারা সর্দি-কাশির প্রকোপ কমায়। সর্দি-কাশিতে কচি পেয়ারার পাতা রস করে হালকা গরম পানির সাথে মিশিয়ে খেলে উপকার পাওয়া যায়।

৫। পেয়ারার অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট ক্যান্সার প্রতিরোধক: পেয়ারাতে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। রয়েছে ক্যারোটিনয়েডস, ভিটামিন-এ, ভিটামিন-সি, লুটেইন ও ক্রিপ্টোজ্যানথিন। এই উপাদানগুলো ফুসফুস ও মুখের ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে। আর লাল পেয়ারার লাইকোপিন মূত্রনালী ও মূত্রথলির  ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে।

৬। শরীরের অতিরিক্ত ওজন কমায়: পেয়ারাতে ডায়াটারি ফাইবারের আধিক্য রয়েছে। আরো রয়েছে স্বল্প ক্যালরি সমৃদ্ধ ও সহজে হজমযোগ্য জটিল শর্করা। যার ফলে পেয়ারা শরীরের অতিরিক্ত ওজন কমাতে সাহায্য করে ।

৭। পেয়ারা যৌবন ধরে রাখে: পেয়ারা তারুণ্য ধরে রাখতে সাহায্য করে। পেয়ারার লাইকোপিন অতি বেগুণী রশ্মি থেকে সৃষ্ট ত্বকের সমস্যা নিরাময় করে। এছাড়া পুরুষের যৌন দৃর্বলতা দূর করতেও পেয়ারা বেশ কার্যকর।