$wpsc_last_post_update = 1574076927; //Added by WP-Cache Manager $wp_cache_pages[ "search" ] = 0; $wp_cache_pages[ "feed" ] = 0; $wp_cache_pages[ "category" ] = 0; $wp_cache_pages[ "home" ] = 0; $wp_cache_pages[ "frontpage" ] = 0; $wp_cache_pages[ "tag" ] = 0; $wp_cache_pages[ "archives" ] = 0; $wp_cache_pages[ "pages" ] = 0; $wp_cache_pages[ "single" ] = 0; $wp_cache_pages[ "author" ] = 0; $wp_cache_hide_donation = 0; $wp_cache_not_logged_in = 0; //Added by WP-Cache Manager $wp_cache_clear_on_post_edit = 0; //Added by WP-Cache Manager $wp_cache_hello_world = 0; //Added by WP-Cache Manager $wp_cache_mobile_enabled = 1; //Added by WP-Cache Manager $wp_cache_cron_check = 1; //Added by WP-Cache Manager ?> $wpsc_last_post_update = 1574076927; //Added by WP-Cache Manager $wp_cache_pages[ "search" ] = 0; $wp_cache_pages[ "feed" ] = 0; $wp_cache_pages[ "category" ] = 0; $wp_cache_pages[ "home" ] = 0; $wp_cache_pages[ "frontpage" ] = 0; $wp_cache_pages[ "tag" ] = 0; $wp_cache_pages[ "archives" ] = 0; $wp_cache_pages[ "pages" ] = 0; $wp_cache_pages[ "single" ] = 0; $wp_cache_pages[ "author" ] = 0; $wp_cache_hide_donation = 0; $wp_cache_not_logged_in = 0; //Added by WP-Cache Manager $wp_cache_clear_on_post_edit = 0; //Added by WP-Cache Manager $wp_cache_hello_world = 0; //Added by WP-Cache Manager $wp_cache_mobile_enabled = 1; //Added by WP-Cache Manager $wp_cache_cron_check = 1; //Added by WP-Cache Manager ?> লিভারের সুস্থতায় ১১টি সহজ টিপস | সুস্বাস্থ্য ২৪
লাইফস্টাইল

লিভারের সুস্থতায় ১১টি সহজ টিপস

মেডিকেল ডিরেক্টর, ক্রিসেন্ট গ্যাস্ট্রোলিভার এণ্ড জেনারেল হাসপাতাল, ঢাকা।

লিভার বা যকৃত দেহের অত্যাবশ্যকীয় অঙ্গ। লিভার খাবার পরিপাকে বিশেষ ভূমিকা রাখে। এছাড়া এটা শরীরের ক্ষতিকর কেমিক্যাল অপসারণে সাহায্য করে। রক্ত জমাট বাঁধতে সাহায্যকারী কিছু উপাদানও লিভারে তৈরী হয়। সুস্থ দেহের জন্য তাই লিভারের কার্যকারিতা ঠিক থাকা অতীব প্রয়োজন। সহজ কিছু নিয়ম মেনেই লিভারকে সুস্থ ও কর্মক্ষম রাখা সম্ভব। চলুন জেনে নেই, লিভার সুস্থ রাখতে ১১টি সহজ টিপস-

 

১. নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার সময় অন্যান্য পরীক্ষা-নীরিক্ষার সাথে লিভার সম্পর্কিত পরীক্ষাগুলো করে নেয়া।

২. মদ্যপান ও অ্যালকোহল গ্রহণ পরিত্যাগ করা।

৩. নেশাজাতীয় দ্রব্য এবং অন্যান্য উত্তেজক ওষুধের ব্যবহার সম্পূর্ণ পরিত্যাগ করা।

৪. ক্ষতিকর খাদ্য উপাদান সম্বলিত খাদ্যবস্তু এড়িয়ে চলা।

৫. নিয়মিত স্বাস্থ্যকর ও সুষম খাবার গ্রহণ করা।

৬. বিশুদ্ধ পানি পান করা এবং কোমল পানীয় পান এড়িয়ে চলা।

৭. মাত্রাতিরিক্ত ওষুধ সেবন না করা।

৮. একাধিক ওষুধ সেবনের ক্ষেত্রে সতর্কতা বজায় রাখা এবং চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া।

৯. নিয়মিত সেবন করা ওষুধ সম্পর্কে চিকিৎসক বা নিকটস্থ স্বাস্থ্য পরিসেবা কেন্দ্র থেকে পরামর্শ নেয়া

আরো পড়ুন  শীতে গলার স্বর ভেঙ্গে গেলে কি করবেন ?

১০. হেপাটাইটিস বি ও সি- এর টিকা নেয়া।

১১. নিয়মিত শরীরচর্চা করা।